**** মৃত্যু থেকে পলায়ন****

.
কবিতার ফেরিওয়ালা মুসাফির
`অনিবার্য মৃত্যু’
.
মৃত্যু অনিবার্য জেনেও দুনিয়ায় বেঁচে থাকার জন্য, সামান্য সুখের জন্য মানুষ কতো কি আয়োজন করে। মানুষের কতো গর্ব হিংসা দেমাগ অহংকার। কতো ঠগবাজি সুদ ঘুষ মারামারি হানাহানি।
.
সূরা বানী ইসরাঈল-এর ৩৭ নম্বর আয়াতে মহান আল্লাহ রাব্বুল আলামিন বলেছেন-‘যমীনে দম্ভ করে চলো না। তুমি কখনোই যমীনকে বিদীর্ণ করতে পারবে না এবং উচ্চতায় পাহাড় সমান হতে পারবে না।’ সূরা লোকমান-এর ১৮ নম্বর আয়াতে আল্লাহ বলেছেন- ‘অহংকারবশে তুমি মানুষকে অবজ্ঞা করো না। পৃথিবীতে গর্বভরে চলাফেরা করো না। নিশ্চয় আল্লাহ কোনো দাম্ভিক অহংকারীকে পছন্দ করেন না।’
.
মানুষ তার অর্থ-সম্পদ, পদ-পদবী, বংশ মর্যাদা, ক্ষমতা, রূপ-লাবণ্য এসবের কতোইনা গর্ব করে, অহংকার করে, বড়াই করে। মৃতুর পর সব গর্ব অহংকার বড়াই মাটিতে মিশে যাবে। পবিত্র কুরআনের ভাষায় মৃত্যুর পর মানুষের নিন্মোক্ত ৯টি আকাঙ্খা হবে, আফসোস হবে। তবে এই আফসোসে কোনো লাভ হবে না।
.
১. হায়! আমি যদি মাটি হয়ে যেতাম।(সূরা নাবা, আয়াত-৪০)
২. হায়! আমি যদি পরকালের জন্য কিছু করতাম।(সূরা ফজর, আয়াত-২৪)
৩. হায়! আমাকে যদি আমার আমলনামা না দেয়া হতো।(সূরা হাক্কা, আয়াত-২৫)
৪. হায়! আমি যদি শয়তানকে বন্ধুরূপে গ্রহণ না করতাম।(সূরা ফুরকান, আয়াত-২৮)
৫. হায়! আমি যদি আল্লাহ ও রাসূল-এর আনুগত্য করতাম।(সূরা আহযাব, আয়াত-৬৬)
৬. হায়! আমি যদি রাসূল-এর পথ অবলম্বন করতাম।(সূরা ফুরকান, আয়াত-২৭)
৭. হায়! আমি যদি নেককারদের সঙ্গে থাকতাম, তা হলে বিরাট সফলতা লাভ করতে পারতাম।(সূরা নিসা, আয়াত-৭৩)
৮. হায়! আমি যদি আমার রবের সঙ্গে কাউকে শরীক না করতাম।(সূরা কাহফ, আয়াত-৪২)
৯. হায়! আমাকে যদি আবার দুনিয়ায় পাঠানো হতো।(সূরা আনআম, আয়াত-২৭)
.
মৃত্যু সম্পর্কে আল্লাহ রাব্বুল আলামিন পবিত্র কুরআনে আরো বলেছেন-
১. ‘তোমরা যে মৃত্যু থেকে পলায়ন কর, সেই মৃত্যু অবশ্যই তোমাদের মুখামুখি হবে।’(সূরা জুমআ, আয়াত-৮)
২. ‘তোমরা যেখানেই থাক, মৃত্যু তোমাদেরকে পাকড়াও করবেই, যদিও তোমরা সুদৃঢ় দূর্গে অবস্থান কর।’(সূরা নিসা, আয়াত-৭৮)
৩. ‘যখন তাদের মৃত্যু এসে যাবে, তখন এক মুহুর্তও বিলম্বিত কিংবা তরান্বিত করতে পারবে না।’(সূরা নাহল, আয়াত-৬১)
৪. ‘জীবমাত্রই মৃত্যুর স্বাদ গ্রহণ করবে। অতঃপর তোমরা আমারই কাছে প্রত্যাবর্তিত হবে।’(সুরা আনকাবুত, আয়াত-৫৭)
৫. ‘কেউ জানে না, কোন্ জায়গায় সে মৃত্যুবরণ করবে।’ (সূরা লুকমান, আয়াত-৩৪)
.
মানুষের এতো গর্ব, দম্ভ, অহংকার, দেমাগ, বড়াই, দর্প কয় দিনের? আমি বলি- ‘কবরে কি এসি আছে/নাকি লাইট ফ্যান//তাহলে আল্লাহর কথা/ভুলে থাকো ক্যান? অতএব, পরকালের জন্য আগে থেকেই সাবধান!
.
‘সাবধান’
.
তোমার ত্যাল ত্যালা শরীরে
দোজখের আগুন জ্বলিবে
অন্যায় করিলে
বন্ধু!
অপরাধ করিলে . . .
.
রুপের ধনের বড়াই করো
নামায কালাম নাহি পড়ো
ছাড়া পাবে না তুমি
আজরাইলে ধরিলে
অন্যায় করিলে
বন্ধু!
অপরাধ করিলে . . .
.
দুনিয়াতে চাও যে আরাম
মানো না হালাল হারাম
মরার পরে লাভ হবে না
আফসোস করিলে
অন্যায় করিলে
বন্ধু!
অপরাধ করিলে . . .
.
ইসলামেরি লেবাস ছাড়ি
হাল ফ্যাশনের বাড়াবাড়ি
সাদা কাফন পড়াইবে
খাটিয়ায় চড়িলে
অন্যায় করিলে
বন্ধু!
অপরাধ করিলে . . .
.
কোর্মা পোলাও বিরাণী খাও
গায়ে দামি গয়না জড়াও
সঙ্গে যাবে না কিছুই
নিঃশ্বাস মরিলে
অন্যায় করিলে
বন্ধু!
অপরাধ করিলে . . .
.

Leave a Reply

Please log in using one of these methods to post your comment:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out /  Change )

Google photo

You are commenting using your Google account. Log Out /  Change )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out /  Change )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out /  Change )

Connecting to %s